রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬২ তম জন্মবার্ষিকীতে জেলা প্রশাসন শরীয়তপুরের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

অনলাইন// আজি এ প্রভাতে রবির কর, কেমনে পশিল প্রাণের পর
কেমনে পশিল গুহার আঁধার প্রভাত পাখির গান!
আজ ২৫ বৈশাখ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৬২ তম জন্মবার্ষিকী। ১২৬৮ বঙ্গাব্দের আজকের দিনে কোলকাতার জোঁড়াসাকোর বিখ্যাত ঠাকুর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর।

১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলী কাব্যগ্রন্থের জন্য সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হন। কবির গান-কবিতা, বাণী বিভিন্ন ভাষাভাষীর মানুষের স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তির ক্ষেত্রে প্রভূত সাহস যুগিয়েছে। এ কারণে তার রচিত “জনগণমন-অধিনায়ক জয় হে” ও “আমার সোনার বাংলা, আমি তোমায় ভালোবাসি” গান দুটি যথাক্রমে ভারত ও বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত।

বাঙলা সাহিত্য অঙ্গনে আর্বিভাব ঘটে এক নক্ষত্রের। সৃজনশীল সাহিত্যকর্ম দিয়ে রবি ঠাকুর জয় করেন সাহিত্যপ্রেমীদের হৃদয়।
আজ কবিগুরুর ১৬২ তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে জেলা প্রশাসন শরীয়তপুরের উদ্যোগে পৌরসভা মিলনায়তনে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় আগত অতিথিবৃন্দ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জীবনাদর্শন এবং তাঁর সাহিত্যকর্ম নিয়ে আলোচনা করেন।
পরবর্তীতে জেলা শিল্পকলা একাডেমি ও শিশু একাডেমির যৌথ পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিল জনাব মোঃ পারভেজ হাসান, জেলাপ্রশাসক, শরীয়তপুর।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জনাব মোঃ সাইফুল হক, পুলিশ সুপার, শরীয়তপুর, জনাব অনল কুমার দে, সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ, জনাব মোঃ শামীম হোসেন, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলাপরিষদ, শরীয়তপুর, জনাব এম.এম জাহাঙ্গীর, সাধারণ সম্পাদাক, জেলা শিল্পকলা একাডেমি, শরীয়তপুর সহ বিভিন্ন স্তরের সাহিত্য অনুরাগী ব্যক্তিবর্গ, বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীবৃন্দ।

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত

Posted on