জমি নিয়ে বিরোধ, প্রতিপক্ষকে মারধর-বাড়িঘর ভাঙচুরের অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধিঃ 

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে মারধর ও বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা অভিযোগ উঠেছে। গত ৯ জুন রবিবার উপজেলার চরসেনসাস ইউনিয়নের নরসিংহপুর মনা গাজী কান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ওই দিন রাতে অহিদ বেপারি (৫৮)সহ তিনজনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন আলী হোসেন নামের এক ক্ষতিগ্রস্ত ভুক্তভোগী। অভিযুক্ত অন্যরা হলেন, মো: শাহজাহান বেপারী (৫০) আব্বাস বেপারী (৪৫)।

এলাকাবাসী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চরসেনসাস মনা গাজী কান্দী গ্রামে জমির মালিকানা নিয়ে দীর্ঘদিন থেকে আলী হোসেন বেপারীর পরিবারের সঙ্গে অহিদ বেপারীর পরিবারের দ্বন্দ্ব চলে আসছে। কিন্তু অহিদ বেপারী মাঝে মাঝেই জমিটি দখলে নিতে যায়। (গত ৯ জুন রবিবার) দুপুর দিকে অহিদ বেপারি তার পরিবারের তিন-চার জন সদস্যকে সঙ্গে নিয়ে ওই বিরোধপূর্ণ জমি দখল করতে যায়। এ সময় আলি হোসেন বেপারী ও বাবা অলি উল্যাহ বেপারী বাধা দিতে গেলে অহিদ বেপারী ও তার ভাই শাহজাহান বেপারী তাদের লাঠি দিয়ে এলোপাথারি পিটিয়ে আহত করে ও তাদের বসত বাড়ী ভাংচুর চালায় ।।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আলি হোসেন বেপারী বলেন, ওরা শুধু আমাদের মারধরই করেনি, আমরা আত্মরক্ষার জন্য দৌড়ে বাড়িতে গেলে ওরা আমাদের পিছু ধাওয়া করে আমাদের বাড়িঘর ভাঙচুর করে।

অভিযুক্ত অহিদ বেপারী বলেন, অনেক বছর ধরেই জমিটি আমরা ভোগদখল করে আসছি। ওইদিন হঠাৎ করে আলী হোসেন জমিতে আমাদের কাজে বাধা দিতে আসে। এ সময় তাদের সঙ্গে আমাদের কিছু কথাকাটাকাটি হয়েছে। কোনো রকম মারামারি বা বাড়িঘর ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেনি।

এ ব্যাপারে সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মাসুদুর রহমান বলেন, জমি সংক্রান্ত বিষয়ে দুইপক্ষের মধ্যে বিরোধ নিয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে

সংবাদ সম্পর্কে আপনার মতামত

Posted on